গাজরের শরবত


গাজরের শরবত

গাজরের শরবত

উপকরণ : গাজর টুকরো ৫০০ গ্রাম, চিনি ২০০ গ্রাম, পানি ৫০০ মিলি লিটার, বাদাম গুঁড়ো সামান্য।

প্রণালী : গাজর ভাল করে ধুয়ে উপরের সবুজ অংশ ও খোসা ছাড়িয়ে নিন। ভেতরের শক্ত অংশ ফেলে দিয়ে কুচি করে কেটে নিন। ব্লেন্ডারে গাজর পানি ও চিনি একসাথে দিয়ে মিহি করে ব্লেন্ড করে ছেকে নিন। এর পর গ্লাসে ঢেলে বাদাম গুঁড়ো ও বরফ কুচি দিয়ে ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করুন।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট ২৫, ২০০৯

দই চিড়া


দই চিড়া

দই চিড়া

উপকরণ : চিড়া ১ কাপ, টকদই ১ কাপ, মিষ্টি দই ১ কাপ, চিনি হাফ কাপ, লবণ ১ চা চামচ।

প্রণালী : চিড়াগুলো ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিন এবার কিছু পানি রেখে দিন এবং দই চিড়া ও সব উপকরণ একসাথে মেখে পরিবেশন করুন।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট ২৫, ২০০৯

রায়তা


রায়তা

রায়তা

উপকরণ : আম ১ কাপ, আনারস ১ কাপ, ডালিম হাফ কাপ, কলা ১ কাপ, গোলমরিচ গুঁড়ো ১ চা চামচ, লেবুর রস ২ চা চামচ, চিনি ১ চা চামচ, কাঁচা মরিচের কুচি ১ চা চামচ, আদা কুচি ১ চা চামচ।

প্রণালী : একটি বাটিতে আনারস, ডালিম, কলা, আম, গোল মরিচের গুঁড়ো, লেবুর রস, চিনি, আদা কুচি ও কাঁচা মরিচের কুচি দিয়ে এক সাথে মিলিয়ে নিন এবং পরিমাণ মত লবণ দিয়ে রায়তা তৈরি করুন এবং সুন্দর ডিসের মধ্যে দিয়ে পরিবেশন করুন।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট ২৫, ২০০৯

ফ্রুটস ফিরনী


ফ্রুটস ফিরনী

ফ্রুটস ফিরনী

উপকরণ : দুধ ১ লিটার, পোলাওর চাল ১০০ গ্রাম, চিনি ৪০০ গ্রাম, মিক্সস ফ্রুটস, আম, কলা, আনার, আপেল পেঁপে, আঙ্গুর াইস ৫০০ গ্রাম করে, গোলাপজল ১ টেবিল চামচ, সামান্য জাফরান, সামান্য কিসমিস।

প্রণালী : চাল ধুয়ে কিছুক্ষণ পানিতে ভিজিয়ে রাখুন তারপর আধ ভাঙ্গা করে নিন। দুধ ও চাল একসাথে চুলায় দিয়ে ফুটে উঠলে সামান্য জাফরান দিয়ে ঘন ঘন নাড়ুন এবং অল্প অল্প করে চিনি দিন। সব চিনি দেওয়া হলে ৫ মিনিট মৃদু আঁচে জ্বাল দিয়ে নামিয়ে গোলাপজল ছিটিয়ে দিন। ফিরনী ঠান্ডা হলে ফলগুলো কিউব সাইজ করে কেটে ফিরনী উপরে দিয়ে কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে তার পর পরিবেশন করুন।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট ২৫, ২০০৯

ছোলা ভুনা


ছোলা ভুনা

ছোলা ভুনা

উপকরণ : ছোলা হাফ কেজি, আলু কিউব কাটা চারভাগের এক কাপ, মটর শুটি চারভাগের এক কাপ, আদা কুচি চারভাগে এক কাপ, তেল চার ভাগের এক কাপ, কারী পাউডার হাফ চা চামচ, ভাজা মসলা হাফ চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণ মতো, কাঁচা মরিচ কুচি ২ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন : ছোলা ও মটর ১২ ঘন্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন। তারপর বুট, আলুগুলো পরিষ্কার করে ধুয়ে লবণ সিদ্ধ করে নিন। কড়াইয়ে তেল দিয়ে গরম হলে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে একটু ভেজে সব মসলা দিয়ে কষিয়ে নিন ছোলা, মটরসুটি আলু দিয়ে ভেজে নিন। তেল ভেসে আসলে নামিয়ে নিন। ধনেপাতা কাঁচামরিচ দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট ২৫, ২০০৯

পাঁচ মিশালী সবজি চপ


পাঁচ মিশালী সবজি চপ

পাঁচ মিশালী সবজি চপ

উপকরণ : গাজর ১০০ গ্রাম, বরবটি ১০০ গ্রাম, আলু ৫০ গ্রাম, কাটা কলা ১০০ গ্রাম, বেসন ৫০ গ্রাম, তেল ২০০ গ্রাম, কর্নফ্লাওয়ার ২০ গ্রাম, লবণ পরিমাণ মত, ডিম ৩টা, বিস্কুটের গুঁড়ো ১০০ গ্রাম।

প্রণালী : একটি বাটিতে গাজর, বরবটি, লালশাক, পুই শাক, আলু কাটা কলা সেদ্ধ একত্রে চটকে নিন। চটকানো সবজির সাথে বেসন কর্নফ্লাওয়ার লবণ দিয়ে মাখিয়ে চপের মত করে শেপ করে নিন। ডিম ফেটে চপ ডিমে ডুবিয়ে বিস্কুটের গুঁড়োতে গড়িয়ে বাদামি করে এপিঠ ওপিঠ ভেজে তুলুন। সুন্দর করে গাজরে ফুল দিয়ে সাজিয়ে, টমেটো সসের সাথে ইফতারির টেবিলে গরম গরম পরিবেশন করুন।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট ২৫, ২০০৯

আনারসের শরবত


আনারসের শরবত

 

আনারসের শরবত

উপকরণ : আনারস ৫০০ গ্রাম, চিনি ২০০ গ্রাম, পানি ৫০০ মিলি লিটার, গোলমরিচের গুঁড়ো হাফ চামচ, লেবুর রস হাফ চা চামচ।

উপকরণ : আনারস ভাল করে কেটে ধুয়ে ছোট ছোট করে টুকরো করে নিন। ব্লেন্ডারে আনারস, চিনি, গোলমরিচের গুঁড়ো একসাথে দিয়ে মিহি করে ব্লেন্ড করে ছেকে নিন। এরপর লেবুর রস মিশিয়ে গ্লাসে বরফ দিয়ে পরিবেশন করুন।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, আগস্ট ২৫, ২০০৯

কাবলি চানাচাট


কাবলি চানাচাট

কাবলি চানাচাট

উপকরণ: মটরদানা দেড় কাপ, পেঁয়াজ ২টি, টমেটো ২টি, কাঁচা মরিচ ২/৩টা, ধনেপাতা পরিমাণমতো, বিট লবণ এক চিমটি, জিরা গুঁড়া ১ চামচ, চাট মসলা ১ চামচ, গুঁড়া মরিচ আধা চামচ, লেবুর শরবত ২ চামচ।

প্রণালি: প্রেসার কুকারে সাত-আট মিনিট মটরদানা সেদ্ধ করে নিতে হবে। ঠান্ডা হলে এর সঙ্গে পেঁয়াজ, টমেটো, কাঁচা মরিচ, ধনেপাতা, বিট লবণ, জিরার গুঁড়া, চাট মসলা, গুঁড়া মরিচ ও লেবুর শরবত দিতে হবে এবং ভালোভাবে মেশাতে হবে। তারপর কাঁচা মরিচ দিয়ে প্লেটে পরিবেশন করতে হবে।

সূত্র: দৈনিক প্রথম আলো, আগস্ট ১০, ২০১০

দই বড়া


দই বড়া

দই বড়া

উপকরণ: কাঁচা মাষকলাই ডাল আধা কাপ, চিনি ২ টেবিল-চামচ, টক দই ৪ কাপ, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, জিরা টালা গুঁড়া ১ চা-চামচ, ধনে টালা গুঁড়া ১ চা-চামচ, মরিচ টালা গুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ পরিমাণমতো, বিট লবণ ১ চা-চামচ, পুদিনাপাতা বা ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ।

প্রণালি: ডাল ৭-৮ ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে মিহি করে বেটে নিতে হবে। অল্প পানি দিয়ে ডাল খুব ভালো করে ফেটাতে হবে। গামলায় ৬-৭ কাপ পানিতে ১ টেবিল চামচ লবণ গুলিয়ে রাখতে হবে। কড়াইয়ে দুই কাপ তেল গরম করে চ্যাপটা আকারে বড়া ভাজতে হবে। বড়া ভাজা হলে তেল থেকে তুলে লবণ পানিতে ছাড়তে হবে। ঘন দই হলে সামান্য পানি দিয়ে ফেটিয়ে লবণ, চিনি দিয়ে কিছুটা গুঁড়া মসলা মেশাতে হবে। বড়া পানি থেকে নিংড়ে নিয়ে দইয়ে ডুবাতে হবে। দই বড়ার ওপরে পুদিনাপাতা কুচি ও বাকি গুঁড়া মসলা ছিটিয়ে রেফ্রিজারেটরে রেখে ঠান্ডা দই বড়া ৫-৬ দিন ধরে পরিবেশন করা যায়।

সূত্র: দৈনিক প্রথম আলো, আগস্ট ১০, ২০১০